1. info@voicectg.com : Voice Ctg :
মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পুলিশের অভিযানে দেশীয় অস্ত্র ও ইয়াবাসহ আটক ২ – ভয়েস চট্টগ্রাম ন্যাটো-রাশিয়া পারমাণবিক যুদ্ধে প্রথম ঘণ্টায় যা হতে পারে। কক্সবাজারে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে হোটেলে ওঠা তরুণীর মৃত্যু। আকাশে ওড়ার ১৫ মিনিটের মাথায় নভোএয়ারের জরুরি অবতরণ। এবার ঘুমধুমের টমটম চালক আনিসের ঝুড়িতে মিললো ৬১১২ পিস ইয়াবা। ১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গণতন্ত্রের অগ্নিবীণার প্রত্যাবর্তন দিবস -তথ্যমন্ত্রী। বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিনা আফরিন মুস্তাফার বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত। আওয়ামীলীগের মাঠজরীপে আছহাব উদ্দিন মেম্বার আবারো জনপ্রিয়তার শীর্ষে। মেয়ে তুমি জম্মেই অভিশপ্ত – লেখক: বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ কাজল দাশ, সম্পাদক ভয়েস চট্টগ্রাম উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ইয়াবাসহ এক নারী মাদককারবারি আটক।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মানবাধিকার রিপোর্ট নিয়ে যা বলল ঢাকাস্হ মার্কিন দূতাবাস।

ডেস্ক নিউজঃ
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২২

 

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মানবাধিকার রিপোর্টকে ‘বিশ্বজুড়ে মানবাধিকার পরিস্থিতির একটি বস্তুনিষ্ঠ বিবরণ উপস্থাপনের চেষ্টা’ বলে অভিহিত করেছেন ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তারা।

দূতাবাসের কর্মকর্তারা বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক মিশন, এনজিও, সুশীল সমাজ, গণমাধ্যমের প্রতিবেদন, বিশেষজ্ঞদের মতামত প্রভৃতির ভিত্তিতে নেওয়া সব তথ্য বস্তুনিষ্ঠভাবে, পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে, ন্যায্যভাবে পর্যালোচনা করে মানবাধিকার রিপোর্ট প্রণয়ন করা হয়।

মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, আমরা মানবাধিকার লঙ্ঘনকে বিচ্ছিন্নভাবে দেখতে পারি না। এই ধরনের লঙ্ঘন যে কোনো একক দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বাইরেও ক্ষতির কারণ হয়; যে কোনো জায়গার অনিয়ন্ত্রিত লঙ্ঘন সবখানেই বিচারহীনতার রোধে অবদান রাখতে পারে। মানবাধিকারের সাতটি ক্ষেত্রের প্রতি নজর দেওয়া হয়। ১. ব্যক্তির মর্যাদার প্রতি শ্রদ্ধা, যা বিচারবহির্ভ‚ত হত্যা, গুম, নির্যাতন ও বিধিবহির্ভূত গ্রেফতারের সঙ্গে সম্পর্কিত; ২. নাগরিক স্বাধীনতার প্রতি শ্রদ্ধা, যা বিচারবহির্ভূত হত্যা, গুম, নির্যাতন ও বিধিবহির্ভূত গ্রেফতারের সঙ্গে সম্পর্কিত; ৩. রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের স্বাধীনতা; ৪. সরকারের দুর্নীতি ও স্বচ্ছতার অভাব; ৫. মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ নিয়ে আন্তর্জাতিক ও বেসরকারি তদন্তের প্রতি সরকারের মনোভাব; ৬. বৈষম্য ও সামাজিক হয়রানি যার মধ্যে রয়েছে নারী, শিশু, যৌন ও লৈঙ্গিক সংখ্যালঘু, জাতিগত সংখ্যালঘু ও আদিবাসী জনগোষ্ঠী এবং শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার; এবং ৭. শ্রমিক অধিকার, যার মধ্যে রয়েছে ইউনিয়ন ও নিরাপদ কর্ম পরিবেশের অধিকার এবং জোরপূর্বক শ্রম, শিশু শ্রম ও নিয়োগের ক্ষেত্রে বৈষম্য নিষিদ্ধ করা।

মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তারা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছরপূর্তি উদযাপন করছে। এই সময়ে গণতন্ত্র, সুশাসন এবং মানবাধিকার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মানবাধিকার প্রতিবেদনে শুধু নেতিবাচক দিক নয়; বরং মানবাধিকার রক্ষায় সরকার যা করছে তারও উল্লে­খ আছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিজ দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি তাদের প্রতিবেদনে অন্তর্ভুক্ত করে না কেন- জানতে চাইলে মার্কিন কর্মকর্তারা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে অবাধ গণমাধ্যম রয়েছে। আমরা আমাদের মানবাধিকার পরিস্থিতি পাশ কাটিয়ে যাচ্ছি না। কংগ্রেসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার পরিস্থিতি কড়া নজরদারির মধ্যে রাখে।

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত