1. info@voicectg.com : Voice Ctg :
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ন্যাটো-রাশিয়া পারমাণবিক যুদ্ধে প্রথম ঘণ্টায় যা হতে পারে। কক্সবাজারে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে হোটেলে ওঠা তরুণীর মৃত্যু। আকাশে ওড়ার ১৫ মিনিটের মাথায় নভোএয়ারের জরুরি অবতরণ। এবার ঘুমধুমের টমটম চালক আনিসের ঝুড়িতে মিললো ৬১১২ পিস ইয়াবা। ১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গণতন্ত্রের অগ্নিবীণার প্রত্যাবর্তন দিবস -তথ্যমন্ত্রী। বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিনা আফরিন মুস্তাফার বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত। আওয়ামীলীগের মাঠজরীপে আছহাব উদ্দিন মেম্বার আবারো জনপ্রিয়তার শীর্ষে। মেয়ে তুমি জম্মেই অভিশপ্ত – লেখক: বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ কাজল দাশ, সম্পাদক ভয়েস চট্টগ্রাম উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ইয়াবাসহ এক নারী মাদককারবারি আটক। মোস্তফা মিয়া ও আলি আহাম্মদকে সভাপতি/সম্পাদক করে লালমোহন বাজার ব্যাবসায়ী সমিতি গঠিত।

অর্ধেক নয় চট্টগ্রামে যত সিট ততই যাত্রী নিয়ে চলবে গণপরিবহন – চট্টগ্রাম বাস মালিক গ্রুপ।

সিনিয়র রিপোর্টার মহানগরঃ
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২

 

করোনা নতুন ধরন ওমিক্রন মোকাবেলায় গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রীর পরিবর্তে যত সিট তত যাত্রী নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ। এতে ভাড়া বাড়ছে না, নির্ধারিত ভাড়াই দিতে হবে যাত্রীদের।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) থেকে চট্টগ্রাম মহানগরসহ সকল গণপরিবহনে এই নিয়ম চালু হবে বলে জানান চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেলে নগরের কদমতলী বিআরসিটি বাস টার্মিনাল এলাকায় আন্তঃজিলা বাস মালিক সমিতি কার্যালয় চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি কফিল উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু বলেন, ‘সরকারে নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা করোনার বিধিনিষেধ মেনে গণপরিবহন চালু রাখবো। আমরা চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন, পুলিশ কমিশনারসহ সবাইকে লিখিতভাবে আবেদন জানাবো যেন সকল পরিবহন শ্রমিকরা টিকার আওতায় আসে। কারণ সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সকল চালক ও হেলপারের টিকা দিয়ে দিতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যত সিট তত যাত্রী রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী শনিবার থেকে সকল বাস ও গণপরিবহন চলবে। কোনো অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হবে না। এছাড়া বাসে প্রত্যেক যাত্রী ও চালক-হেলপারের মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক থাকতে হবে। গণপরিবহনে কোনো যাত্রী দাঁড়িয়ে থাকতে পারবে না। শনিবার থেকে আমাদের একটি মনিটরিং টিম কাজ করবে।’

চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের যুগ্ম সম্পাদক মো. শাহাজাহান বলেন, ‘চট্টগ্রামের পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে অর্ধেকই টিকার আওতায় আসেনি। তাই আজকের সভায় আমাদের দাবি ছিল নগরের পাঁচটি স্পট- অক্সিজেন, বহদ্দারহাট, কদমতলী, অলংকার, মাদারবাড়ি বাস টার্মিনালে ভ্রাম্যমাণ টিকাকেন্দ্র চালু করার। আমাদের পরিবহন শ্রমিকরা টিকার আওতায় আসলে করোনা মোকাবেলায় আমরা শতভাগ সরকারকে সহযোগিতা করবো।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সহ-সভাপতি নুরুল আবছার, সাংগঠনিক সম্পাদক আহাসউল্লা হাসান, যুগ্ম সম্পাদক বদরুল হুদা মুরাদ, চট্টগ্রাম আঞ্চলিক শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অলি অহম্মাদ, চট্টগ্রামের সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সদস্য মো. মনসুর আলম, মো. মনিরুল ইসলাম, মো. ফারুখ খান, মো. জাফর, মো. নুরুল ইসলাম, মো. খোরশেদ, মো. আবুল বশর, মো. হাসান প্রমুখ।

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত